বুধবার জানুয়ারি ২৭, ২০২১ || ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভাস্কর্য নিয়ে ভুল ব্যাখ্যা বন্ধ করে ক্ষমা না চাইলে জনগণ জবাব দেবে : মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী

খবর২৪ডেস্ক

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে ভুল ব্যাখ্যা বন্ধ করে ক্ষমা না চাইলে জনগণ এর সময়োচিত জবাব দেবে।

তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর সকল মুসলিমপ্রধান দেশে ভাস্কর্য আছে। বাংলাদেশেও অনেক আগে থেকেই বহু ভাস্কর্য রয়েছে। সেসব ভাস্কর্য নিয়ে কখনও কেউ কিছু বলেনি, কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধী ষড়যন্ত্রকারীরা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতার ধৃষ্টতা দেখাচ্ছে।’

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত প্রয়াত নাট্যজন বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী যাকের ও জাতীয়ফুটবল দলের কৃতি ফুটবলার বাদল রায়ের স্মরণে শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, যারা ’৫২ এর ভাষা আন্দোলন, ’৫৪ ও ’৭০ এর নির্বাচন এবং ১৯৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলা ভাষা, বাঙালি জাতিসত্তা ও বাঙালির ন্যায়সঙ্গত অধিকারকে ইসলামের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করিয়েছিল, তাদের উত্তরসূরিরাই আজ ধর্মের অপব্যাখ্যা করে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে অপব্যাখ্যা দিচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা স্বাধীনতাবিরোধীদের ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের অংশ।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু, সংবিধান এবং স্বাধীনতার চেতনায় আঘাত আসলে বীর মুক্তিযোদ্ধারা বসে থাকবে না। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর আহবানে বীর মুক্তিযোদ্ধারা অস্ত্র জমা দিয়েছে, কিন্তু ট্রেনিং জমা দেয়নি।

তিনি বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী যাকের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে ইংরেজি সংবাদ পাঠ করতেন। বাদল রায় খেলাধূলার পাশাপাশি স্বাধীনতাবিরোধীদের বিরুদ্ধে সবসময় সোচ্চার ছিলেন। তাঁরা দুজনেই নিজ অঙ্গনে কিংবদন্তি। ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তাদের অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে শোকসভায় অন্যান্যের মধ্যে সংগীত শিল্পী এস ডি রুবেল, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের সভাপতি লায়ন গনি মিয়া বাবুল বক্তব্য রাখেন।

সূত্র : বাসস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *