শুক্রবার জুন ৫, ২০২০ || ২২শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনায় মার্কিনিদের মৃত্যুর জন্য দায়ী ট্রাম্প: নোয়াম চমস্কি

খবর২৪ডেস্ক

করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) মহামারিকে নিজের নির্বাচনী সম্ভাবনা বৃদ্ধিতে ব্যবহার করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে হাজারো মার্কিনির মৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন অধ্যাপক নোয়াম চমস্কি। বৃটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন এই বুদ্ধিজীবী বলেন, এক শতাব্দীর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ভয়ানক স্বাস্থ্য সংকট সৃষ্টি করেছে করোনা মহামারি। এ সংকটে দেশের উদ্ধারকারীর অভিনয় করে, সাধারণ মার্কিনিদের পেছন থেকে ছুরি মারছেন ট্রাম্প। চলতি বছরের শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য লড়বেন ট্রাম্প। চমস্কি বলেন, ট্রাম্প প্রশাসন ধনী করপোরেশনগুলোর সুবিধার্থে স্বাস্থ্যসেবা ও সংক্রামক রোগ নিয়ে গবেষণায় অর্থায়ন কমিয়ে দিয়েছে। তিনি বলেন, ট্রাম্প তার মেয়াদের প্রতিবছরই এটা করে আসছেন। প্রতি বছর অর্থায়ন আরো কমাচ্ছেন।

তার পরিকল্পনা হচ্ছে, এটা কমাতেই থাকা। জনগণকে যথাসম্ভব ঝুঁকির মুখে ফেলতে যতটুকু করা যায় তার সবটাই করছে। এতে জনগণ ভুগলেও ধনী ও করপোরেট শক্তিগুলোর জন্য তা লাভবান হবে। চমস্কি আরো বলেন, ভাইরাস মোকাবিলার দায়িত্ব রাজ্যের গভর্নরদের কাছে ছেড়ে দিয়ে নিজের কাজে ফাঁকি দিয়েছেন ট্রাম্প। এটা অনেক মানুষকে মারার ও তার নির্বাচনী সম্ভাবনা বাড়ানোর খুবই কার্যকরী এক কৌশল। তিনি ট্রাম্পকে হাজারো মার্কিনির মৃত্যুর জন্য দায়ী মনে করেন কিনা, এমন এক প্রশ্নের জবাবে চমস্কি বলেন, হ্যা, কিন্তু মূল ব্যাপারটি এর চেয়েও ভয়ানক। কারণ, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও এটা সত্য। ট্রাম্প সবসময় মার্কিন জনগণের বিরুদ্ধে তার অপরাধ আক্রমণ ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে আসছেন। এখন তিনি তার কাজের জন্য ‘বলির পাঠা’ খোঁজা চেষ্টা করছেন। চমস্কি বলেন, ট্রাম্প বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় অর্থায়ন বন্ধ করার সিদ্ধান্তে ইয়েমেন ও আফ্রিকা মহাদেশজুড়ে অসংখ্য মানুষ মারা যাবে। প্রসঙ্গত, বিশ্বজুড়ে প্রগতিশীল শক্তি একত্রিত, সংগঠিত ও সক্রিয় করার উদ্দেশ্যে ‘প্রগ্রেসিভ ইন্টারন্যাশনাল’ নামে একটি বৈশ্বিক সংগঠনের উদ্বোধন উপলক্ষে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন চমস্কি। সংগঠনটির প্রথম প্রবক্তা ছিলেন মার্কিন সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স ও গ্রিক অর্থমন্ত্রী ইয়ানিস ভারৌফাকিস। সংগঠনটির লক্ষ্য, বিশ্বজুড়ে উঠতি ডানপন্থি লোকরঞ্জনবাদের বিরুদ্ধে কাজ করা। এর অন্যান্য সদস্যের মধ্যে রয়েছে, আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী কাতরিন জাকপসদোতির, লেবার পার্টির ছায়া চ্যান্সেলর জন ম্যাকডনেল, লেখিকা নাওমি ক্লেইন, অরুন্ধতী রায় ও আরো অনেকে। আইসল্যান্ডের রাজধানী রেকজাভিকে আগামী সেপ্টেম্বরে এর উদ্বোধনী সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *