শুক্রবার মার্চ ৫, ২০২১ || ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিদেশে পলাতক বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করার দাবিতে মানববন্ধন

খবর২৪ডেস্ক
বিদেশে পলাতক বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করার দাবিতে সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটি।

আজ সোমবার সকাল ১১টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ সভাপতি নাট্য ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী।

বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, সাধারণ সম্পাদক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অরুন সরকার রানা, যুগ্ম সম্পাদক অভিনেত্রী তানভিন সুইটি, অভিনেত্রী জেনিফার ফেরদৌস, মোত্তাছিম বিল্লাহ, অধ্যক্ষ আহসান সিদ্দিকী, নুর হোসেন লিটন, কণ্ঠশিল্পী বৃষ্টি রাণী সরকার, কণ্ঠশিল্পী কল্লোল, আওয়ামী যুবলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন রুহুল, নাট্যশিল্পী হাবিবুল্লাহ রিপন, সুজন মৃধা প্রমুখ।

কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম বলেন, বঙ্গবন্ধুর ঋণ বাঙালি জাতি কখনো শোধ করতে পারবে না। বাঙালি জাতি বঙ্গবন্ধুর কাছে চিরঋণী। যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে তারা মীরজাফর। ওরা এদেশের স্বাধীনতাকে চায়নি। ওরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, আইনের শাসন, গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে। ওরা ক্ষমার অযোগ্য। ওদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে।

আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার বলেন, জিয়াউর রহমান মনে প্রাণে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেনি। তিনি শত শত মুক্তিযোদ্ধা সেনা কর্মকর্তাদের বিনা বিচারে হত্যা করেছেন। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরুস্কৃত করেছেন। আমি সরকারের কাছে আহ্বান জানাবো তাদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করার জন্য।

অভিনেত্রী তানভিন সুইটি বলেন, জাতি সেইদিন কলঙ্কমুক্ত হবে যেদিন বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলিয়ে রায় কার্যকর করা হবে। বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে যেমন ষড়যন্ত্র হয়েছিল তাকে হত্যা করার জন্য তেমনই বিদেশের মাটিতে বসে বঙ্গবন্ধুর কন্যার বিরুদ্ধে তারেক জিয়া একের পর এক ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। এই ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা দিয়েছেন আর তার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সারা পৃথিবীর বুকে রোল মডেল হিসেবে রূপান্তরিত করেছেন।

অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী বলেন, জেনারেল জিয়াউর রহমান খন্দকার মোস্তাক মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন আইএসআই ও পাকিস্তানের এজেন্ট হিসেবে। ৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে তা প্রমাণিত হয়েছে। তিনি জেনারেল জিয়া খন্দকার মোস্তাকের মরণোত্তর বিচারের দাবি করেছেন। তিনি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ষড়যন্ত্রকারী যিনি জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল সেই তারেক জিয়াসহ যারা ২১ আগস্ট ঘটনার সাথে জড়িত ছিল তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে দ্রুত বিচারের রায় কার্যকর করার দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *