মঙ্গলবার সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০ || ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পাথর দিয়ে প্রেমিককে হত্যা, প্রেমিকা গ্রেপ্তার

খবর২৪ডেস্ক
হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার ধর্মপুর গ্রামের মেন্দিবিল থেকে উজ্জল মিয়া (২২) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বিকালে হবিগঞ্জের সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে এই মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত উজ্জল মিয়া লাখাই উপজেলার পূর্ব মুড়াকড়ি গ্রামের শাহ আলমের ছেলে। এই ঘটনায় সন্দেহভাজন উজ্জল মিয়ার প্রেমিকা ধর্মপুর গ্রামের ফারজিনা বেগম ও তার পিতা মঞ্জু মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম জানান, উজ্জল মিয়া গত ২০ ফেব্রুয়ারি ধর্মপুর গ্রামে প্রেমিকা ফারজানা বেগমের বাড়ীতে অবস্থান করে অভিসারে মিলিত হয়। উজ্জল মিয়া ছিল বহুগামী। এ সময় সে আরেক প্রেমিকার সাথে মোবাইলে কথা বললে ফারজিনা রাগ করে। এক পর্যায়ে তাদের মাঝে কথাকাটাকাটি হয়। এ সময় উত্তেজিত হয়ে ফারজিনা পুতাইল (পাথর) দিয়ে উজ্জল মিয়ার মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। ফারজিনা তখন ঘরের মাঝে গর্তকরে উজ্জল মিয়ার লাশ মাটিতে পুতে ফেলে। বাড়ীতে দুর্গন্ধে ছড়িয়ে পড়লে ১০ থেকে ১২ দিন পর ফারজিনার পিতা মঞ্জু মিয়া মেয়ের কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে লাশটি গর্ত থেকে বের করে মেন্দিবিলে ফেলে আসে। উজ্জল মিয়ার সন্ধান না পেয়ে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি তার পিতা শাহ আলম লাখাই থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। পরে এর সূত্র ধরে সোমবার বিকালে অভিযান চালিয়ে উজ্জল মিয়ার গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশের শুধু কঙ্কাল পাওয়া যায়। তবে উজ্জলের পিতা শাহ আলম ছেলের শার্ট, প্যান্ট ও কোমড়ের বেল্ট দেখে লাশটি সনাক্ত করেন।

তিনি আরো জানান, সন্দেহভাজন হিসাবে উজ্জলের প্রেমিকা ফারজিনা ও তার পিতা মঞ্জু মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এটি একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *