সোমবার ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৮ || ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

মেসি-রোনালদোরা বিশ্বকাপে খেলতে নামলেই শুরু হবে ‘হামলা’

খবর২৪ডেস্ক
গত বছরের অক্টোবরে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) রাশিয়াতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে হামলার হুমকি দিয়েছিল। সে সময় তারা লিওনেল মেসি-ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো-নেইমারদের রক্তাক্ত ছবি নিয়ে পোস্টারও ছাপায়। স্বাভাবিকভাবেই সবরকম পরিস্থিতির জন্য আগেভাগে সতর্ক থাকছে রাশিয়া। বিশ্বকাপে যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

তবে ফুটবল বিশ্বকাপের ২১ তম আসরের পর্দা উঠার মাত্র ক’দিন আগে নতুন এক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে রাশিয়া। যা নিয়ে এখন থেকেই উদ্বেগে বিশ্বকাপের আয়োজকরা। যদিও এবারের আশঙ্কা সন্ত্রাসী হামলা হবে এই নিয়ে নয়, দেশটির কৃষি মন্ত্রণালয়ের শস্য চাষ বিভাগের প্রধান পিওতর চেকমারেভ মস্কোতে কৃষি বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে জানান, বিশ্বকাপে খেলা চলার সময় পঙ্গপালের হামলা হলে তা হবে বড় ধরনের কেলেঙ্কারি।

পঙ্গপাল হলো ছোট শিংয়ের বিশেষ প্রজাতির পতঙ্গ, যাদের জীবন চক্রে দল বা ঝাঁক বাধার পর্যায় থাকে। এই পতঙ্গগুলো সাধারণত একাই থাকে, কিন্তু বিশেষ অবস্থায় তারা একত্রে জড়ো হয়। তখন তাদের আচরণ ও অভ্যাস পরিবর্তন হয়ে সঙ্গলিপ্সু হয়ে পড়ে। পঙ্গপাল এবং ঘাস ফড়িংয়ের মধ্যে শ্রেণিগত কোনও পার্থক্য নেই। বিশেষ অবস্থায় তাদের প্রজাতিরা একত্র হওয়ার যে প্রবণতা দেখা যায় সেটাই মূল পার্থক্য।

বিশ্বকাপে পঙ্গপালের হামলা প্রসঙ্গে পিওতর চেকমারেভ বলেন, ‘পুরো বিশ্বের লোক এখানে আসবে। ফুটবল মাঠগুলো সবুজ। পঙ্গপাল সবুজের সমারোহ পছন্দ করে। যেখানে ফুটবল খেলা হচ্ছে, সেই জায়গায় তারা কিভাবে না এসে পারে?’

জুন-জুলাইয়ে রাশিয়া জুড়ে ১১টি শহরের ১২টি স্টেডিয়ামে হবে বিশ্বকাপের খেলা। এর মধ্যে শঙ্কাটা বেশি দক্ষিণাঞ্চলের ভলগোগ্রাদ নিয়ে। ওই অঞ্চলে হাজার হাজার হেক্টর জমিতে পঙ্গপালের উপদ্রব দেখা যায়। যদিও কদিন আগেই পরিবেশবান্ধব স্টেডিয়ামগুলোর জন্য আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার প্রশংসা পেয়েছিল আয়োজকরা। তবে এখন তাদের বড় উদ্বেগের নাম সবুজ পাগল এ পতঙ্গ।

১৪ জুন মস্কোয় রাশিয়া-সৌদি আরব ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বিশ্বকাপ। ১৫ জুলাই ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে রাশিয়া বিশ্বকাপের। রাশিয়ার ১১টি শহর জুড়ে হবে বিশ্বকাপের ২১ তম এ আসর।

সূত্র: ইএসপিএন এফসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *