সোমবার ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৮ || ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ধামইরহাটে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী খুন

খবর২৪ডেস্ক
নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় স্বামী আব্দুর রহমানের (৪০) ছুরিকাঘাতে পারভীন বেগম (৩৫) নামে এক গৃহবধূর খুনের ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার উমার ইউনিয়নের অন্তর্গত দৌলতপুর গ্রামে ওই খুনের ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

নিহতের বড় মেয়ে জান্নাতুন ফেরদৌস জানান, গত মঙ্গলবার রাতের খাবারের পর তার বাবা আব্দুর রহমান ও মা পারভীন বেগম ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। কোন এক সময় আব্দুর রহমান তার মাকে ঘুমন্ত অবস্থায় পিঠে ছুরিকাঘাত করে এবং মুখে কাপড় ঢুকিয়ে দেয়। যাতে কোন প্রকার শব্দ না করতে পারে তার মা।

এ সময় পার্শের ঘরে থাকা নিহতের কন্যা জান্নাতুন ও তার বোন মায়ের গোঙ্গানি শুনতে পেয়ে ঘরে ছুটে এসে দেখে তার মায়ের নাক, মুখ ও পিঠের বাম দিক থেকে প্রচুর রক্ত ক্ষরণ হচ্ছে। তাদের দুই বোনের চিৎকার শুনে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসে। কিন্তু ইতোমধ্যে পারভীনের মৃত্যু হয়। ঘটনার পর পরই ঘাতক আব্দুর রহমান পালিয়ে যায়। আব্দুর রহমান উপজেজলার দৌলতপুর গ্রামের কোবাদ মুন্সীর ছেলে। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এব্যাপারে নিহতের বাবা জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার তিলকপুর কানুছপাড়া গ্রামের মো. আইয়ুব হোসেন জানান, তার জামাই দির্ঘদিন ধরে ঢাকায় রিক্সা চালাত। সেখানে একটি মেয়ের সাথে পরকীয়া জড়িয়ে পড়ে এবং পারভীনকে তালাক দিয়ে ওই মেয়েকে বিয়ে করতে চায়। গত ১৫দিন আগে সে ঢাকা থেকে বাড়িতে এসে পারভীনে উপর উপর নির্যাতন শুরু করে। গত ৬ ফেব্রুয়ারী তারিখে হাসুয়া দিয়ে আমার মেয়েকে জবাই করার জন্য আব্দুর রহমান আক্রমণ চালায়। সেই সময় নিহতের জামাইয়ের বাধার কারণে তার মেয়েকে তার স্বামী হত্যা করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে ধামইরহাট থানার ইন্সপেক্টর্র (তদন্ত) ছানোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে রাতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ নওগাঁ সদর হাসপাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের বাবা আইয়ুব হোসেন বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *