শনিবার জুন ২৪, ২০১৭ || ১০ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

অভিযোগে জর্জরিত পাকিস্তান দলের পাশে গাঙ্গুলী-হরভজন

খবর২৪ডেস্ক
রাত পোহালেই চ্যাম্পিয়নস ট্রফির হাইভোল্টেজ ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত-পাকিস্তান। এর আগেই সরফরাজ খানের দলের বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের মারাত্মক অভিযোগ তুলেছেন সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার আমির সোহেল।

তার ভাষ্যমতে, পাকিস্তান নাকি পাতানো খেলার মাধ্যমে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালে গেছে! এই কঠিন সময়ে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ালেন ভারতের সাবেক সফলতম অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী এবং স্পিনার হরভজন সিং।
পাকিস্তানি এক টিভি চ্যানেলের সঙ্গে আলাপকালে আমির সোহেলের বলেছিলেন, “এ জয়ে গৌরবের কিছু নেই। সরফরাজকে কারও বলা উচিত, তোমরা মহৎ কিছু করেছ ভেব না। বাইরের কেউ তোমাদের এ জয় পাইয়ে দিয়েছে। সরফরাজের এত খুশি হওয়ার কারণ নেই। আমরা সবাই জানি, পর্দার আড়ালে কী হয়!”

এরপর থেকেই তোলপাড় শুরু হয় ক্রিকেটাঙ্গনে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রায় হেরে বসা ম্যাচ বের করে এনে দারুণ প্রশংসিত হয়েছিলেন পাকি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। তার বিরুদ্ধেই যখন এই অভিযোগ তখন সৌরভ গাঙ্গুলী বললেন, “একজন সাবেক ক্রিকেটারের উচিত তার দেশকে ফাইনালে ভালো খেলার জন্য উৎসাহ দেওয়া। কিন্তু ফাইনালের আগে যা ঘটল তা নিঃসন্দেহে বাজে একটি ঘটনা! আমি সত্যিই বিস্মিত এমন বাজে ক্রিকেটীয় সংস্কৃতি দেখে। আমিরের এমনটা বলা উচিত হয়নি। ”

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের এমন বিপদের সময় তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন দেশটির তীব্র সমালোচক হিসেবে খ্যাত হরভজন সিংও। ভাজ্জি বলেছেন, “আমি নিশ্চিত যে, তিনি (আমির সোহেল) পাকিস্তানের একজন সম্মানিত সাবেক ক্রিকেটার। কিন্তু নিজেদের ক্রিকেট টিমের প্রতি যদি তিনি সম্মান দেখাতে না পারেন; উল্টাপাল্টা মন্তব্য করেন; তবে আমি নিশ্চিত সেই সম্মানটা তিনি ধরে রাখতে পারবেন না। ”

সৌরভ গাঙ্গুলী এবং হরভজন সিং দুজনই সরফরাজ বাহিনীকে উৎসাহ দিয়ে বলেছেন, এসব তো পাকিস্তান ক্রিকেটে নতুন কোনো ঘটনা নয়। তাই বাজে কথায় কান না দিয়ে মাঠের খেলায় মন দেওয়াটাই যুক্তিযুক্ত। যখন রাত পোহালেই নিজের দেশের বিপক্ষে খেলতে নামবে পাকিস্তান; তার আগে প্রতিপক্ষের পাশে দাঁড়িয়ে ক্রিকেটের সত্যিকারের মাহাত্ম্য প্রকাশ করলেন এই দুই সাবেক ভারতীয় গ্রেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *