শুক্রবার জুন ২৩, ২০১৭ || ৯ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই খাবেন?

খবর২৪ডেস্ক
অনেক দিন থেকেই আমরা শুনে আসছি যে, ফ্রেঞ্চ ফ্রাই স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। কিন্তু সাম্প্রতিক একটি গবেষণায়, সপ্তাহে অন্তত দুইবার ফ্রেঞ্চ ফ্রাই খাওয়ার অভ্যাসের সঙ্গে মৃত্যু ঝুঁকি বৃদ্ধি পাওয়ার যোগসূত্র দেখানো হয়েছে।

আমেরিকান জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশনে প্রকাশিত এই গবেষণায়, ৪৫ থেকে ৭৯ বছর বয়সি ৪,৪০০ বয়স্ক মানুষের খাদ্য তালিকায় আলু থাকার বিষয়টি ৮ বছর ধরে খেয়াল করা হয়েছে। গবেষণা শেষে দেখা গেছে, এর মধ্যে ২৩৬ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বিভিন্ন কারণ সামঞ্জস্য করার পর, সামগ্রিকভাবে আলু খাওয়া (এমনকি বেশি খাওয়ার পরেও) একজন ব্যক্তিরও মৃত্যু ঝুঁকি বৃদ্ধি করেনি। কিন্তু গবেষকরা যখন আরো গভীর অনুসন্ধান করেন যে, কি ধরনের আলু মানুষজন খেয়েছেন তখন তারা খুঁজে পেয়েছেন- ফ্রাইড আলু যেমন ফ্রেঞ্চ ফ্রাই, আলু ভাজা, হ্যাশ ব্রাউন সপ্তাহে অন্তত দুইবার খাওয়াটা মৃত্যু ঝুঁকি দ্বিগুণ বৃদ্ধির সঙ্গে যোগসূত্র ছিল।

ভাজাহীন আলু যেমন সেদ্ধ আলু, রান্না করা আলুর সঙ্গে মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ার কোনো যোগসূত্র পাননি গবেষকরা।

ভাজাহীন সাদা আলু অপেক্ষাকৃতভাবে একটি স্বাস্থ্যকর খাবার কারণ এতে ভালো পরিমাণে ফাইবার, ভিটামিন এবং মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট সমূহ রয়েছে। গবেষণাপত্রটির লেখকের মতে, যা আলুর উচ্চ গ্লাইসেমিক ইনডেস্কের ক্ষতিকারণ প্রভাবের সমতুল্য মোকাবেলা করতে পারে (কোন খাবারে রক্তে শর্করা কতটা বাড়ে, তা নির্ভর করে তার গ্লাইসেমিক ইনডেস্কের ওপর)।

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই অর্থাৎ ভাজা আলুতে সাধারণত প্রচুর ফ্যাট এবং লবণ যোগ করা হয়।

বর্তমানের গবেষণাটি অল্প সংখ্যার মানুষের ওপর পরিচালিত। তাই বলার অপেক্ষা রাখে না যে, ফ্রেঞ্চ ফ্রাই বেশি খাওয়া মৃত্যু ঝুঁকি সৃষ্টি করে- এটা নিশ্চিতভাবে বলার জন্য আরো বড় গ্রুপের ওপর আরো বেশি গবেষণা করা প্রয়োজন।

তবে সে পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের নিউট্রিশন পলিসি অ্যান্ড প্রমোশন সেন্টার দৈনিক ৩-৫ বার শাকসবজি খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। যদিও অনমনীয় সবজি যেমন আলু এর অন্তর্ভুক্ত। তবে কম ফ্যাট যুক্ত সবজি খাওয়ার ওপর বেশি গুরুত্বারোপ করা হয়েছে এবং ফ্রাইড অর্থাৎ ভাজা পরিহার করতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *